লক্ষ্য শিল্প, আজ জার্মানি ও ইতালি সফরে মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দেশে সুপার ইমার্জেন্সি চলছে। ২০১৯ সালে সব সমমনোভাবাপন্ন দলগুলির একত্রিত হওয়া উচিত। যাতে এই মহান দেশের প্রতিষ্ঠানগুলি ফের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় কাজ করতে পারে। শনিবার আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবসে এই ট্যুইট বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। গণতন্ত্র দিবসে দেশে গণতন্ত্র ভেঙে পড়েছে বলে অভিযোগ করলেন তিনি।
এদিকে আজ, রবিবার সকালে শিল্পের লক্ষ্যে জার্মানি ও ইতালি সফরে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে যাচ্ছেন অর্থ ও শিল্পমন্ত্রী অমিত মিত্র, মুখ্যসচিব মলয় দে, অর্থসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদি, মুখ্যমন্ত্রীর প্রধান সচিব গৌতম সান্যাল এবং সিকিউরিটি ডিরেক্টর অজয় নন্দা ও নিরাপত্তাকর্মীরা। সঙ্গে থাকবেন রাজ্যের শিল্পপতিরাও। জার্মানির ফ্র্যাঙ্কফার্টে এবং ইতালির মিলানে শিল্পপতিদের সঙ্গে বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী। বৈঠক করবেন ইন্দো-জার্মান অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে। দুই দেশের বণিকসভার বৈঠকে যোগ দেবেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, জার্মানি ও ইতালি থেকে আমাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছে। ওঁরা বিশ্ববঙ্গ বিজনেস সামিটে যোগ দিয়েছিলেন। সেই সম্মেলনেই আমাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। জার্মানি ম্যানুফাকচারিং শিল্প এবং ইতালি চর্মশিল্পের জন্য বিখ্যাত। আমাদের এখানেও এই দুই শিল্পের খুবই সম্ভাবনা রয়েছে। তাই ফ্র্যাঙ্কফার্টে শিল্পপতিদের সঙ্গে বৈঠক করব। মিলানেও অনুরূপ বৈঠক করব। রাজ্যে বিনিয়োগের জন্য আহ্বান জানানো হবে। দুবাইতে একরাত থেকে মুখ্যমন্ত্রী ফিরবেন ২৮ সেপ্টেম্বর। তবে যে ক’দিন বিদেশে থাকবেন, সেই ক’দিনের জন্য তিনি মন্ত্রীদের নিয়ে একটি এবং অফিসার ও পুলিসকর্তাদের নিয়ে এক কমিটি তৈরি করেছেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আমি আর মুখ্যসচিব সব সময় মোবাইলের মাধ্যমে যোগাযোগ রাখব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com