৮ বছরের পুরনো মামলায় হাজিরা ২১ সেপ্টেম্বর চন্দ্রবাবু নাইডুর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

হায়দরাবাদ, ১৪ সেপ্টেম্বর (পিটিআই): আট বছরের একটি পুরনো মামলায় অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নাইডুর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তরি পরোয়ানা জারি করল মহারাষ্ট্রের আদালত। গোদাবরী নদীর উপর বাবলি বাঁধ নির্মাণের প্রতিবাদে ২০১০ সালে আন্দোলন করেছিলেন অন্ধ্রপ্রদেশের তৎকালীন বিরোধী দলনেতা চন্দ্রবাবু নাইডু। সেই সময়ই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। সেই মামলাতেই ফের তাঁকে গ্রেপ্তার করে আদালতে হাজির করানোর নির্দেশ দিয়েছেন ধর্মবাদ আদালতের ফার্স্ট ক্লাস বিচারক এন আর গজভাইয়ে। পুলিসকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, চন্দ্রবাবু নাইডু সহ ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করে আগামী ২১ সেপ্টেম্বর পরবর্তী শুনানি দিন আদালতে হাজির করাতে হবে।
২০১০ সালে গোদাবরী নদীর উপর বাবলি ব্যারাজ নির্মাণ নিয়ে তৎকালীন অন্ধ্রপ্রদেশ ও মহারাষ্ট্রের মধ্যে চরম টানাপোড়েন শুরু হয়। অন্ধ্রপ্রদেশের অভিযোগ ছিল, ওই ব্যারাজ নির্মাণের মাধ্যমে তেলেঙ্গানা অঞ্চল থেকে গোদাবরীর জল অন্যদিকে সরিয়ে নিয়ে যেতে চাইছে মহারাষ্ট্র। সেই সময় টিডিপি নেতা চন্দ্রবাবু নাইডু ছিলেন অন্ধ্রপ্রদেশের বিরোধী দলনেতা। ৪০ জন বিধায়ককে সঙ্গে নিয়ে তিনি নিষেধাজ্ঞা ভেঙে ব্যারাজের কাছে পৌঁছে যান। নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করায় পুলিস বিক্ষোভকারীদের গ্রেপ্তার করে। যদিও পরে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা জামিন নেননি। চন্দ্রবাবু নাইডুকে বিমানে হায়দরাবাদে পাঠিয়ে দেয় পুলিস। তবে সেই মামলাটি চলছিল।
সম্প্রতি মহারাষ্ট্রের এক বাসিন্দা আদালতে এক আবেদনের মাধ্যমে প্রশ্ন করেন, কেন ওই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা কার্যকর করা হল না? সেই শুনানিতেই ধর্মবাদ আদালত শুক্রবার ওই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করল। চন্দ্রবাবু নাইডু ছাড়াও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশের জলসম্পদমন্ত্রী দেবীনেনি উমেশ্বর রাও, সমাজকল্যাণমন্ত্রী এন আনন্দ বাবু ও প্রাক্তন বিধায়ক জি কমলাকরের বিরুদ্ধেও।
চন্দ্রবাবু নাইডুর বিরুদ্ধে পুরনো মামলায় নতুন করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হওয়ায় রাজনৈতিক চর্চা শুরু হয়েছে। তেলুগু দেশমের অভিযোগ, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই ওই পুরনো মামলাকে খুঁচিয়ে তোলা হয়েছে। বস্তুত, সম্প্রতি বিজেপির সঙ্গে টিডিপির সম্পর্কের অবনতি হয়েছে। বিজেপির বিরুদ্ধে বিরোধী জোট গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিচ্ছেন চন্দ্রবাবু নাইডু। সেই কারণে তাঁর বিরুদ্ধে মোদি চক্রান্ত করছেন বলে টিডিপির অভিযোগ। দলের নেতা বুদ্ধ বেঙ্কান্না বলেছেন, বিজেপি ডাইনি খুঁজে বেড়াচ্ছে। চন্দ্রবাবু নাইডুর ছেলে তথা রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী এন লোকেশ বলেছেন, ওই রায়ের বিরুদ্ধে আইনি লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে দল। তবে মুখ্যমন্ত্রী পরবর্তী শুনানির দিন আদালতে হাজিরা দেবেন।
সফটওয়্যার প্যাচের কারণে আধারের তথ্যের সুরক্ষা বিঘ্নিত হচ্ছে: রিপোর্ট
নয়াদিল্লি, ১৪ সেপ্টেম্বর: আধারের সুরক্ষা নিয়ে সরকার যতই দাবি করুক না কেন, সাম্প্রতিক তদন্তে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসেছে। টানা তিন মাস তদন্তের পর দেখা গিয়েছে, একটি সফটওয়্যার প্যাচের সুবাদে হ্যাকাররা আধারের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com